আতসবাজির বিরুদ্ধে পথে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন

মালদা,১২ নভেম্বর–  করোনা আবহে দেশ জুড়ে আতঙ্কের পরিবেশ। সারা পৃথিবীর প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি মানুষ আক্রান্ত এই ভাইরাসে। প্রভাব পড়েছে ভারত সহ এই রাজ্যেও। বাংলার কয়েক লক্ষ মানুষ কোভিড ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারাও গিয়েছেন প্রচুর মানুষ। চিকিৎসক সহ বিজ্ঞানীরা বলছেন, আতসবাজির শব্দ এবং ধোঁয়া করোনা রোগীদের পক্ষে ক্ষতিকারক। সম্প্রতি দিল্লির গ্রিন আদালত ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত সমস্ত আতসবাজিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এছাড়া এই রাজ্যেও বাজির অপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। তবে দীপাবলি এবং ছটপুজো সহ কয়েকটি উৎসবে  পরিবেশবান্ধব বাজি পোড়ানোর ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে। তবে সাধারণ মানুষ সচেতন না  হলে কোর্টের রায় কতটা কার্যকরী হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

শব্দবাজি ও আলোক বাজির বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষকে সচেতন করার জন্য পথে নেমেছে বিভিন্ন সামাজিক সংগ্নগঠন।বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞানমঞ্চ, ভারত স্কাউটস্ অ্যান্ড গাইডস্ মালদা উদীচী, স্পার্ক, স্বপ্নছায়ায় আলোর দিশা, নতুন প্রজন্ম, সঞ্জীবনী, ঐকান্তিক মাতৃমন্ডলী, প্রভৃতি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সহযোগিতায় পুরাতন মালদার সদরঘাট থেকে একটি মিছিলের আয়োজন করা হয়।বিভিন্ন পথ পরিক্রমা করে ম মঙ্গলবাড়ীতে এই পদযাত্রা শেষ হয়। সেখানে একটি  পথসভায় বক্তব্য রাখেন পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞানমঞ্চ মালদার কার্যকরী সভাপতি ড: প্রাণতোষ সেন, সম্পাদক সুনীল দাস, ভারত স্কাউটস্ অ্যান্ড গাইডস্ মালদা জেলা রক্তদান শিবির আহ্বায়ক অনিল কুমার সাহা,  সেন্ট জন অ্যাম্বুলেন্স মালদার সদস্য সুরজিৎ মন্ডল প্রমুখ।