করোনা সংক্রামিত হয়ে চলে গেলেন পাঁচ টাকার চিকিৎসক

ওয়েব ডেস্ক, ১৭ সেপ্টেম্বর— নৈহাটিতে মাত্র পাঁচ টাকার চিকিৎসক হিসাবে পরিচিত ছিলেন তিনি। নৈহাটির পাশাপাশি গোটা ব্যারাকপুর মহকুমাতেও পরিচিত ছিলেন  পাঁচ টাকার চিকিৎসক হিসাবে । সামান্য অর্থে দুঃস্থদের চিকিৎসা করতেন চিকিৎসক হিরন্ময় ভট্টাচার্য। ক’দিন ধরে জ্বর ছিল তাঁর। করোনা উপসর্গ নিয়ে রাতে বেলঘরিয়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি হয়েছিলেন। আপ্রাণ চেষ্টা করা হলেও তাঁর অবস্থা সংকটজনক হয়ে উঠেছিল। সোমবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ পর পর দু’বার হার্ট অ্যাট্যাক হওয়ার মৃত্যু হয় তাঁর। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর।   লকডাউনের পর একেবারে সামনের সারি থেকে লড়াই চালিয়ে গিয়েছিলেন হিরন্ময় ভট্টাচার্য। সংক্রমণের ভয় না পেয়ে নিয়মিত চেম্বারে রোগী দেখতেন। কাউকে ফেরাতেন না। চেস্ট স্পেশালিস্ট হলেও জেনারেল ফিজিশিয়ান হিসাবে সাধারণ গরিব মানুষের কাছে ‘ভগবান’ ছিলেন তিনি। আইএমএ রাজ্য শাখার একাধিক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। তাঁর মৃত্যুতে রাজ্যের চিকিৎসক মহলেও গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে। এই নিয়ে রাজ্যে করোনায় বলি হলেন বেশ কয়েকজন চিকিৎসক। কিছু দিন কয়েক আগে ব্যারাকপুর মহকুমারই শ্যামনগরে জনপ্রিয় চিকিৎসক প্রদীপ কুমার ভট্টাচার্যের মৃত্যু হয়।