কালবৈশাখীর ঝড়ে লন্ডভণ্ড উত্তরের একাধিক জেলা

মালদা, ৯ এপ্রিল—কয়েকদিন থেকেই তাপমাত্রার পারদ চড়ছিল। সূর্যদেবের তীব্র জ্বালায় অতিষ্ঠ হয়ে একটু স্বস্তির নিশ্বাস খুঁজছিল বাঙ্গালী। অবশেষে সেই আশা পূরণ হল। বৃহস্পতিবার রাতে হঠাত করেই প্রকৃতি যেন মানুষের প্রতি একটু সদয় হলেন। রাত আনুমানিক দশটা নাগাদ কালো মেঘে ছেয়ে যায় আকাশ। তার কিছুক্ষণ পরেই অঝোর ধারায় নামে এই মরশুমের প্রথম বৃষ্টি। বৃষ্টিতে দাবদাহ কমে মানুষ একটু স্বস্তি পেলেও সেইসঙ্গে  নেমে আসে প্রকৃতির তাণ্ডবলীলাও। প্রবল বেগে বইতে থাকে বাতাস। তীব্র বাতাসের জেরে ভেঙ্গে পড়ে প্রচুর গাছপালা। বাড়িঘর। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলাতে ঝড়ের কবলে পড়ে একজনের মৃত্যুর খবরও মিলেছে।শুক্রবার সকাল হতেই প্রকৃতির এই ধ্বংসলীলার ছবিটা সামনে আসতে শুরু করে। জেলার বিভিন্ন প্রান্তে গৃহহীন হয়ে পড়েন অসংখ্য মানুষ। নির্বাচনী বিধির গেরোয় কোনো রাজনৈতিক দল অবশ্য ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়াতে সাহস করেনি। তবে প্রশাসনের তরফে পর্যাপ্ত সাহায্য করা হয়েছে। বসন্তের একেবারে শেষপ্রান্তে প্রকৃতির  স্বস্তিদায়ক রূপে মানুষ যেমন কিছুটা হলেও শান্তি পেয়েছেন, তেমনই তার তাণ্ডবলীলায় সব হারিয়ে অসহায় হয়ে পড়েছেন বহু মানুষ।