কুয়াশার কারণে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, মৃত ১৪ এবং আহত ১৮

ওয়েব ডেস্ক, ২১ জানুয়ারি—ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনার শিকার ১৪ জন। মঙ্গলবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ির ধূপগুড়ি জেলায়। আহত হয়েছেন আরও ১৮ জন।  জানা গিয়েছে, এদিন বোল্ডার ভর্তি ট্রাক গাড়ির ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডিভাইডারে ধাক্কা মারে এবং ডান দিকে উল্টে  যায়। সেই সময় উল্টোদিক থেকে আসা দুটি গাড়ির যাত্রীদের ওপর বোল্ডারগুলি পড়ে যায়। একটি লরিকেও ধাক্কা মারে ওই ট্রাকটি।  খব্র পেয়ে ধূপগুড়ির সার্কেল ইন্সপেক্টর সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌঁছান। কুয়াশার জন্য়ই এই দুর্ঘটনা বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিশের। ইতিমধ্য়েই ট্রাক চালককে আটক করেছে পুলিশ। আহতদের নিয়ে যাওয়া হয় কলকাতা হাসপাতালে। মঙ্গলবার রাত ৯টা নাগাদ ভয়াবহ  ঘটনাটি ঘটেছে ধূপগুড়ির জলঢাকা সেতুর কাছে ময়নাতলি এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান ধূপগুড়ির বিধায়ক মিতালি রায়। সূত্রের খবর, ওই দুটি গাড়িতে করে বৌভাত খেতে যাচ্ছিলেন বেশ কয়েকজন। সকলেরই বাড়ি রানিহাট মোড় ও সাপ্টিবাড়ি এলাকায়।এই দুর্ঘটনার পরেই প্রশাসনের বিরুদ্ধ ক্ষোভ উগরে দেন স্থানীয়রা। তাঁদের কথায়, প্রত্য়েকদিন ওই রাস্তায় বালি, ডাম্পার, পাথর ভর্তি বহু লরি, ট্রাক যাতায়াত করে। বহু ক্ষেত্রে আইনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ওয়ারলোড করে জিনিসপত্রর নিয়ে যায় তারা। এর আগে ওভারলোডিং-এর কারণে দুর্ঘটনা হলেও পুলিশের তরফে এই বিষয়ে কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের।মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায় জানিয়েছেন, ধূপগুড়ির পথ দুর্ঘটনায় প্রয়াত ১৪ জনের পরিবারকে আড়াই লক্ষ টাকার ক্ষতিপূরণ দেবে রাজ্য় সরকার। পাশাপাশি দুর্ঘটনায় আহতদের ৫০ হাজার এবং যারা সামান্য় আঘাত পেয়েছেন তাঁদের ২৫ হাজার করে দেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *