রাজভবনে রাজ্যপালের সঙ্গে সাক্ষাৎ মুখ্যমন্ত্রীর

ওয়েব ডেস্ক, ৬ জানুয়ারি— একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করে রাজ্য সরকারের সঙ্গে সংঘাত বাড়িয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। এমনকি রাজ্যের একাধিক মন্ত্রী রাজ্যপালকে বিজেপির এজেন্ট বলেও  কটাক্ষ করেছেন। এমনই সংঘাতের আবহে বুধবার হঠাৎই রাজভবনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর এই সাক্ষাৎ ঘিরে তৈরি হয়েছে হয়েছে রাজনৈতিক জল্পনা। রাজ্যপালের সঙ্গে রাজ্য সরকারের সংঘাত এখন নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার। বুধবারও মুখ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে আক্রমণ শানিয়েছেন। ঠিক সেইদিন সন্ধ্যাতেই মুখ্যমন্ত্রীর রাজভবন যাত্রা বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। প্রায় ঘণ্টা খানেক ধরে চলে এই বৈঠক। যদিও নবান্ন সূত্রে, মুখ্যমন্ত্রীর রাজভবন যাত্রাকে নিছকই সৌজন্য সাক্ষাৎ বলে দাবি করা হয়েছে। তবে, মুখ্যমন্ত্রী সন্ধ্যা ৬.১৭ মিনিট নাগাদ বেরিয়ে গেলেও এ বিষয়ে মুখ খোলেননি।
বুধবার বিকেল ৫টা নাগাদ তিনি রাজভবনে ঢোকেন মুখ্যমন্ত্রী। মুহূর্তেই বাড়িয়ে দেওয়া হয় রাজভবনের সামনে পুলিশি তৎপরতা। অন্যান্য দিনের মতো এদিন কোলাঘাট থেকে সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকেই নিশানা করে বলেন, সংবিধান মেনে কাজ করছেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বহিরাগত, উম্পুন দুর্নীতি, করোনা মোকাবিলা নিয়ে রাজ্যকে প্রবল আক্রমণ শানান তিনি। তার পরই মুখ্যমন্ত্রীর এই রাজভবন যাত্রায় তুঙ্গে জল্পনা। যদিও বৈঠকের পর ট্যুইট করে রাজ্যপাল লেখেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী   রাজভবনে এসেছিলেন। আমরা নতুন বছরের শুভেচ্ছা বিনিময় করেছি।’ সেই ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে দেন রাজ্যপাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *