সাংসদ তহবিলের টাকায় প্রথম আইসিইউ অ্যাম্বুলেন্স চাঁচল মহকুমায়

মালদা ১২ নভেম্বর: মালদার  চাঁচল মহকুমার দীর্ঘদিন ধরে  কোনো আইসিইউ অ্যাম্বুলেন্স ছিল না।সমগ্র মালদা জেলায় মাত্র একটিই ছিল এই আইসিইউ অ্যাম্বুলেন্স।ফলে  জরুরীকালীন সময়ে কোনো মুমূর্ষু রোগীকে কলকাতা বা শিলিগুড়ি নিয়ে যেতে গেলে প্রচন্ড সমস্যার সম্মুখীন হতে হতো।অবশেষে সেই সমস্যার সমাধান হল। বৃহস্পতিবার  সাংসদ তহবিলের বরাদ্দকৃত ২৪ লক্ষ টাকায় রোটারি ক্লাব অফ চাঁচলের পক্ষ থেকে আইসিইউ অ্যাম্বুলেন্সের উদ্বোধন করা হয়।এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উত্তর মালদার সাংসদ খগেন মুর্মু,বিজেপির জেলা সভাপতি তথা সমাজসেবী গোবিন্দচন্দ্র মন্ডল, রোটারি ক্লাব অফ মালদা জেলা গভর্নর সুভাশিষ চাটার্জি,বিশিষ্ট সমাজসেবী তথা রাজনীতিবিদ দীপঙ্কর রাম,মালতীপুর বিধানসভার বিধায়ক অলবেরুনী সহ রোটারি ক্লাব অফ চাঁচলের সদস্য এবং অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ। সাংসদের কাছে রোটারি ক্লাব এবং চাঁচল তথা সমগ্র মহকুমার মানুষের দীর্ঘদিনের আবেদন ছিল যাতে তিনি আইসিইউ অ্যাম্বুলেন্স প্রদান করেন। অবশেষে সেই দাবি পূরণ হওয়াই খুশি সকলেই। এই অ্যাম্বুলেন্স আসার পেছনে অন্যতম অবদান রয়েছে চাঁচলের বিশিষ্ট সমাজসেবী তথা রাজনীতিবিদ দীপঙ্কর রামের। তাঁর উদ্যোগকেও সাধুবাদ জানিয়েছেন সকলে। দীপঙ্কর রাম বলেন,  সাংসদ ভোটে জেতার পরেই আমাদের রোটারি ক্লাব এবং চাঁচলের সঙ্গে একটি বৈঠক করেছিলেন। সেখানেই আমরা একটি আইসিইউ অ্যাম্বুলেন্স এবং শববাহী যান দেওয়ার আবেদন করেছি্লাম। কারণ সমগ্র মহকুমার মানুষকে প্রচন্ড সমস্যার সম্মুখীন হতে হত। এরকম আর্থিক সংকটের মুহূর্তেও সাংসদ আমাদের কথা রেখেছেন। তাঁর  তহবিলের বরাদ্দকৃত টাকায় আমাদের আইসিইউ অ্যাম্বুলেন্স প্রদান করেছেন। আমরা কৃতজ্ঞ। উত্তর মা্লদার সাংসদ খগেন মুর্মু বলেন, এলাকার উন্নয়নের জন্য সাংসদ তহবিলের একটা টাকা থাকে। প্রতিবছর আমরা ৫ কোটি টাকা করে পাই। তার মধ্যে আমার প্রথম ইনস্টলমেন্টের টাকা থেকে এই আইসিইউ অ্যাম্বুলেন্সের টাকা বরাদ্দ করেছি।এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল।পূরণ করতে পেরে খুশি। রোটারি ক্লাবের মালদা জেলার জেলা গভর্নর শুভাশিস চ্যাটার্জি বলেন,  মাননীয় সাংসদ মহাশয় আমাদের উপর ভরসা রেখেছেন। তার জন্য তাঁকে ধন্যবাদ। সেই ভরসার যথাযোগ্য মর্যাদা দেব আমরা । আর এই এলাকাতে কোনো গরিব রোগী আইসিইউ অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়া বহন না করতে পারলে আমাদের ক্লাবের পক্ষ থেকে তাদের সাহায্য করার চেষ্টাও করব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *