দুই ঘণ্টার বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি বালুরঘাট শহরে

বালুরঘাট, ৮ জুলাই — নিকাশি ব্যবস্থা নেই। ফলে মাত্র দুই ঘণ্টার বৃষ্টিতেই বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হল বালুরঘাট শহরে। বৃষ্টির জলেই ঘরবন্দি হতে হল শহরের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ছিন্নমস্তা কলোনির বাসিন্দাদের। ঘরের মধ্যে কেঊ চৌকিতে, আবার কেঊ বা উঁচু জায়গায় আশ্রয় নিয়েছেন। শুধু তাই নয়, রাস্তাতেও জমেছে হাঁটুসমান বা কোমরসমান জল। শহরের বাসিন্দাদের অভিযোগ, পুরসভার কাঊন্সিলারদের কাট্মানি খাওয়ার প্রবণতার কারণেই শহরে নিকাশি ব্যবস্থা গড়ে তোলা সম্ভব হয়নি। এর ফল ভুগতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় অবশ্যা মঙ্গলবারেই বৈঠক ডেকেছেন পুরসভার প্রশাসক তথা মহকুমাশাসক ইশা মুখারজি।
রবিবার রাতে টানা বৃষ্টির পর সোমবার সকালে ফের বৃষ্টি হয় বালুরঘাট শহরে। টানা বর্ষণের জেরে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে জল জমে যায়। সবথেকে খারাপ পরিস্থিতি হয় ছিন্নমস্তা কলোনির। শুধু রাস্তাতেই নয়, জল ঢুকে যায় সাধারণ মানুষের ঘরেও। শহরের রাস্তায় জল জমে থাকায় বিপাকে পড়তে হয় স্কুল কলেজের পড়ুয়া থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষকে। শহরের মানুষের নাজেহাল দশার জন্য কাউন্সিলারদের অদূরদর্শিতাকেই দায়ী করেছেন তৃণমূলের যুব নেতা অভিজিত মিত্র। তাঁর অভিযোগ, উন্নয়নের কাজে কাঊন্সিলারদের কাট্মানি খাওয়ার কারণেই নিকাশি ব্যবস্থার এমন বেহাল দশা। শহরের নিকাশি ব্যবস্থা গড়ে তুলতে পূর্বতন তৃণমূল বোর্ড প্রায় এক কোটি টাকা বরাদ্দ করেছিল। কিন্তু সেই টাকা নয়ছয় হয়েছে। ফলে নিকাশি ব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি। এর জেরেই মানুষকে ভুগতে হচ্ছে।