জমি নিয়ে দুই প্রতিবেশীর মধ্যে বিবাদে চলল গুলি, জখম এক

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ শহরের পূর্ব উকিলপাড়া এলাকায়। গুরুতর জখম যুবককে রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রকাশ্য দিবালোকে জনবহুল এলাকায় গুলি চালনার ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। যদিও এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রায়গঞ্জ শহরের পূর্ব উকিলপাড়ার নিবেদিতা নার্সিং হোম এলাকার বাসিন্দা বিশ্বজিৎ সরকারের সাথে তার প্রতিবেশী শেফালী দত্তের বাড়ির জায়গা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিবাদ চলছিল। বৃষ্টি হলেই প্রতিবেশী শেফালী দত্তের বাড়ির জল গিয়ে জমা হয় বিশ্বজিৎ সরকারের বাড়িতে। বহুবার জল ড্রেন কেটে রাস্তায় বের করে দেওয়ার কথা বলা হলেও শোনেনি বলে অভিযোগ। গতকাল রাত থেকে টানা বৃষ্টিতে বিশ্বজিৎ বাবুর বাড়িতে শেফালী দেবীর বাড়ির জল জমে গেলে তিনি তা বলতে যান। রেগে গিয়ে দুমগ বৃষ্টির জল শেফালীদেবীর বিছানায় ছিটিয়ে দিতেই গন্ডগোল শুরু হয়। বিশ্বজিৎ বাবুর অভিযোগ শেফালীদেবী বাইরের লোকজন নিয়ে এসে মারধর শুরু করে এবং গুলি চালায়। তাপস সরকার নামে বিশ্বজিৎ বাবুর ভাগনে কে গুলি করে দুস্কৃতীরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাপস সরকার কে রায়গঞ্জ গভর্মেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় এলাকায় চাপা উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। ঘটনাস্থলে রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

বাইট ১) বিশ্বজিৎ সরকার (আহত তাপসের মামা)