তৃণমূলের কমিটি নিয়ে অসন্তোষ, বিক্ষোভ মৌসম নুরের বাড়ির সামনে

দেবু সিংহ, মালদা, ১০ আগস্ট– ব্লক কমিটি গঠন ইশ্যুতে ফের তৃণমূলের বিক্ষুব্ধরা কোতুয়ালীর মৌসম নুরের বাসভবনের সামনে ঝাণ্ডা হাতে বিক্ষোভ দেখালেন। এমনকি নতুন ব্লক কমিটি গঠন নিয়ে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন দলের অনেকে। শনিবার সকাল থেকে কোতুয়ালি ভবনের সামনে মালদা জেলার বিভিন্ন অঞ্চল কমিটি সহ নেতাকর্মীরা দলীয় ঝান্ডা হাতে নিয়ে বিক্ষোভ দেখান। যদিও বিক্ষোভের সময় বাড়িতে ছিলেন না দলের জেলা সভানেত্রী মৌসম নুর। তাঁর বক্তব্য, দলীয় কাজে হবিবপুরে তিনি গিয়েছেন। নেতাকর্মীদের বিক্ষোভের ব্যাপারে তাঁর কিছু জানা নেই। যদি কোনো সমস্যা হয় তাহলে অবশ্যই খতিয়ে দেখা হবে। তিনি আরও বলেন, যে কমিটি গঠন করা হয়েছে তা সাময়িক কিছু দিনের জন্য। পরে রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা করে স্থায়ী কমিটি গঠন করা হবে ।
কয়েকদিন আগে মালদা জেলা ব্লক তৃণমূল কমিটির পুরোনো কমিটি ভেঙে নতুন কমিটি তৈরি করা হয়। সাংগঠনিক কাজকর্ম পরিচালনার প্রতিটি ব্লকে পাঁচ থেকে ছয়জন করে নেতাদের নিয়ে একটি মনিটরিং কমিটি কমিটি গঠন করেন জেলা নেতৃত্ব। এরপরই হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ব্লক নেতৃত্বের কাছে নতুন ব্লক কমিটির লিস্ট পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এরপর থেকেই দলের একাংশের মধ্যে অসন্তোষ দানা বাঁধতে শুরু করে। বিভিন্ন ব্লকের নেতা-নেত্রীদের অভিযোগ, কংগ্রেসিদের কমিটিতে নেওয়া হয়েছে। এতে তৃণমূল দলের ক্ষতি হবে।

কালিয়াচক ২ ব্লকের কার্যকরী সভাপতি ধীরেন্দ্রনাথ মন্ডল বলেন, আমার স্ত্রী চম্পা মন্ডল বলেন এই ব্লকের বিদ্যুৎ কর্মাধ্যক্ষ। দীর্ঘদিন ধরেই আমরা সক্রিয়তার সাথে তৃণমূল করে আসছি। কিন্তু এই কমিটিতে কাউকে রাখা হয়নি। অবাঞ্ছিতভাবে কংগ্রেসিদের দলে টেনে নতুন করে ব্লক কমিটি তৈরি করা হয়েছে। যারা এতদিন তৃণমূলের জন্য লড়াই আন্দোলন চালিয়েছে, তারাই বাদ পড়ে গেল। আর এলাকার কংগ্রেস নেতৃত্বকে তৃণমূলের ব্লক কমিটিতে রাখা হয়েছে। এদিন কোতোয়ালি ভবনে বিক্ষোভকারী তৃণমূল কর্মীদের একাংশের অভিযোগ , কাটমানি নিয়ে নতুন ব্লক কমিটি তৈরি করা হয়েছে। কালিয়াচক ২, বামনগোলা, হবিবপুর, সহ বিভিন্ন ব্লক কমিটি ভেঙে নতুন ভাবে যে ব্লক কমিটি তৈরি করা হয়েছে তাতে বিপুল পরিমাণে টাকার খেলা হয়েছে। যারা এতদিন তৃণমূল বিরোধী কাজ করে গেল । তাদেরকে বিভিন্ন ব্লক কমিটিতে রাখা হয়েছে‌। এসবের প্রতিবাদ জানিয়ে এদিন জেলা সভানেত্রী বাসভবনে এসে বিক্ষোভ দেখিয়ে প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন সকলে।

তৃণমূল পরিচালিত কালিয়াচক ২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি টিংকুর রহমান বিশ্বাস বলেন , নতুন যে ব্লক কমিটি তৈরি হয়েছে । তা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া সম্ভব না । কারণ এই ব্লক কমিটিতে যাদের নাম দেওয়া হয়েছে প্রত্যেকেই কংগ্রেস দল করে। তৃণমূলের সাথে এদের কোনো যোগাযোগ নেই। এরকম চলতে থাকলে আগামী বিধানসভায় দলের মধ্যে বিরূপ প্রভাব পড়বে। মানুষ এটা ভালো চোখে মেনে নিচ্ছে না। এমনকি সংশ্লিষ্ট এলাকার নেতাকর্মীদের মধ্যেও চরম অসন্তোষ তৈরি হয়েছে। সেই সবদিক সামলাতে এদিন দলের জেলা সভানেত্রী বাড়িতে এসেছি বিক্ষোভ প্রতিবাদ দেখিয়েছি।
তৃণমূল জেলা সভাপতি মৌসম নুর বলেন, কোনোরকম বিক্ষোভ দেখানো হয়নি। যে অভিযোগ তোলা হচ্ছে তা সঠিক নয় । তবে নতুন ব্লক কমিটি তৈরি হয়েছে তা অল্প সময়ের জন্য। এই কমিটি তৈরি নিয়ে যদি কোনো সমস্যা থাকে অবশ্যই তা খতিয়ে দেখা হবে।