জল সংকটে জেরবার বালুরঘাট হাসপাতাল, বাইরে থেকে পানীয় জল কিনতে হচ্ছে রোগীদের

বালুরঘাট, ১২ আগস্ট– বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে ২৪ ঘন্টারও বেশী সময় ধরে পানীয় জল পরিসেবা ব্যাহত হয়ে পড়ায় চরম সমস্যায় পড়েছেন রোগী সহ রোগীর পরিবারের সদস্যরা । বাধ্য হয়েই নিজেদের টাকা খরচ করে খবার জল কিনতে হচ্ছে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও তাঁদের পরিবারকে । পরিস্থিতি বেগতিক দেখে পুরসভা থেকে জলের ট্যাংকার নিয়ে এসে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। একই সাথে হাসপাতালের শৌচালয়গুলিতেও জলের সরবরাহ বন্ধ হয়ে পড়ায় রোগী ও রোগীর পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি সমস্যায় পড়েন হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীরাও। ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে উদাসীনতার অভিযোগে সরব হয়েছেন রোগী সহ রোগীর পরিবারের সদস্যরা । যদিও সমস্ত ঘটনা নিয়ে পিএইচই’র উপর দায় চাপিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ।
বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে দক্ষিণ দিনাজপুরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজার হাজার মানুষ চিকিৎসা পরিসেবা নিয়ে থাকেন । প্রতিদিন প্রচুর মানুষের সমাগম হয়ে হাসপাতালে । রোগীর সাথে তাঁর পরিবারের সদস্যদের পানীয় জল সরবরাহ দেওয়া হয় পিএইচই’র মাধ্যমে । হাসপাতাল জুড়েই রয়েছে পিএইচই’র মাধ্যমে পাইপ লাইনে জল সরবরাহের ব্যবস্থা। অভিযোগ, রবিবার থেকে হঠাৎ করে পানীয় জল সহ শৌচালয়ের জল সরবরাহ বন্ধ হয়ে পড়ে। ফলে সমস্যায় পড়েন রোগী সহ রোগীর পরিবারের সদস্যরা । বাধ্য হয়ে পকেটের টাকা খরচ করে পানীয় জল কিনতে হয় সকলকে। এমনকি শৌচালয়ের জল পরিসেবা বন্ধ হয়ে পড়ায় জল কিনে এনে প্রয়োজনীয় কাজ সারতে হয়েছে অনেককে। ফলে বাধ্য হয়ে পৌরসভা থেকে জলের ট্যাংকার এনে দুজন কর্মী দিয়ে হাসপাতালের উপর তলা ও নীচতলাতে বিভিন্ন ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে জল পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করে কর্তৃপক্ষ ।
বালুরঘাট হাসপাতালে আসা রোগীর এক আত্মীয় আইজুল মোল্লা জানিয়েছেন, ২৪ ঘন্টারও বেশী সময় ধরে হাসপাতালে জল সরবরাহ বন্ধ হয়ে পড়েছে । সমস্যায় পড়ে অনেককেই নিজেদের পকেটের টাকা খরচ করে বাইরে থেকে জল কিনে খেতে হয়েছে । শৌচকর্মের জন্যও জল কিনতে হয়েছে এদিন ।
বালুরঘাট হাসপাতালের অ্যাসিস্ট্যান্ট সুপার অরিন্দম রায় জানিয়েছেন, মাঝেমধ্যেই পিএইচই এমন সমস্যা করে। সমাধান হবে বললেও কাজ হয়নি । এদিন বাধ্য হয়ে পৌরসভা থেকে জল ট্যাংকার এনে দু’জন কর্মী দিয়ে হাসপাতালে জল সরবরাহ করা হয়েছে ।