প্রচণ্ড গরমে দায়িত্ব পালন করে হিরো কালিয়াচকের ট্র্যাফিক পুলিশ

http://www.bengalnewsupdate.com/

জুলফিকার আলি :- তাপমাত্রা প্রায় ৪০ ছুই ছুই। প্রচণ্ড গরমে নাজেহাল দশা সাধারণ মানুষের। তীব্র দাবদাহে রাস্তায় বের হতে আতঙ্কিত সকলেই, এমন অসহনীয় পরিস্থিতির মধ্যেও কাজ করে চলেছেন ট্র্যাফিক পুলিশের কর্মীরা। মালদা জেলা সহ কালিয়াচক থানা পুলিশের এই কর্তব্যপরায়নতায় খুশি কালিয়াচকের মানুষ। কালিয়াচকের চৌরঙ্গী এলাকা ব্লকের আর্থসামাজিক ব্যবস্থার প্রাণকেন্দ্র। প্রায় হাজারের ওপর দোকান রয়েছে এখানে।

এছাড়াও রাস্তার ওপরেই অস্থায়ী দোকান ব্যবসা পরিচালনা করে থাকেন শতাধিক মানুষ। চৌরঙ্গীর আশেপাশে রয়েছে বেশ কয়েকটি সরকারি, বেসরকারি স্কুল সহ প্রশাসনিক একাধিক দপ্তর। স্বাভাবিক ভাবেই প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষের সমাগম হয় এখানে। গুরুত্বপূর্ণ এই এলাকায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক দিয়ে লোকাল এবং দূরপাল্লার বহু গাড়ি যাতায়াত করে। এই সমস্ত যানবাহন নিয়ন্ত্রণ করে সাধারণ মানুষকে রাস্তা পারাপারে সাহায্য করে থাকেন কয়েকজন ট্র্যাফিক পুলিশ। তাঁদের সাহায্য ক্রেন জনা কয়েক সিভিক ভ্লান্টিয়ার। শুধু গরমের মরশুম নয়, সারা বছর ধরেই কাজ করে থাকেন ট্র্যাফিক পুলিশরা। তাঁদের এই কাজে খুশি কালিয়াচকের মানুষজন।

কালিয়াচক ব্যবসায়ী সমিতির এক কর্তা সামিউল হক বলেন, কালিয়াচকের ট্র্যাফিক পুলিশ যেভাবে কাজ করছে, তাতে আমরা খুশি। কালিয়াচক ব্যবসায়ী সমিতির প্রাক্তন সম্পাদক জাকির হোসেন বলেন, কালিয়াচকে লোকজন বাড়ছে। গাড়িঘোড়া বাড়ছে। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে যানজট। এই সমস্যা মোকাবিলায় ট্র্যাফিক পুলিশ যেভাবে কাজ করে চলেছে, তা অবশ্যই প্রশংসার যোগ্য। কালিয়াচক-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের উপ্প্রধান ইম্রুল কয়েশ ওরফে রিকু শেখ বলেন, প্রচণ্ড গরমকে উপেক্ষা করেই কালিয়াচকের ট্র্যাফিক পুলিশ যে ভাবে কাজ করে চলেছে, তার ফলে চৌরঙ্গীর যানজট অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। কমেছে দুর্ঘটনার সংখ্যা। তাঁদের এই কাজে সকলেই খুশি।