ডাইনি অপবাদ দিয়ে খুন একজনকে

বালুরঘাট, ১৭ সেপ্টেম্বর– সালিশি সভায় করা জরিমানার টাকা শোধ দিতে না পারায় এক ব্যক্তিকে কাদায় চুবিয়ে শ্বাসরোধ করে খুনের অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশীদের বিরুদ্ধে। নৃশংস এই ঘটনায় রক্ষা পায়নি মৃতের ছেলেও। খুনের চেষ্টায় তাঁকেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপানো হয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাটের ডাঙ্গা পঞ্চায়েতের মাধবপাড়া আদিবাসী গ্রামে। মৃত ব্যক্তির নাম কমল মার্ডি (৪৫) । ঘটনার পরেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় মৃতের ছেলে রক্তাক্ত রমেন মার্ডিকে বালুরঘাট জেলা হাসপাতাল ভরতি করা হয়। রবিবার রাতের ওই ঘটনার পরেই গ্রাম জুড়ে থমথমে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। আজও থমথমে রয়েছে এলাকা। ঘটনায় ৬ জনের বিরুদ্ধে বালুরঘাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে মৃতের পরিবার। পুলিশ ৩ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে ঘটনার তদন্তে নেমেছে। ধৃতদের নাম শুকলাল মার্ডি, রহিম মার্ডি ও লক্ষণ হাঁসদা। বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসনের সর্বস্তরে জানানো হলেও এখনো পর্যন্ত কোন সচেতনতা ক্যাম্প হয়নি গ্রামে । পুরো ঘটনায় আতঙ্কের পরিবেশ ওই আদিবাসী গ্রামে ।
জানা গিয়েছে, ইটভাঁটার কর্মী কমল মার্ডি। কাজের ফাঁকে বাড়িতে পূজো অর্চনা নিয়ে ব্যস্ত থাকতেন তিনি । স্ত্রী সহ তাঁর দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে । মেয়ের বিয়ে হয়েছে । তবে পরিবারের সকলেই ভিনরাজ্যে কাজ করে । প্রায় দুই মাস আগে তাঁর স্ত্রী মসিলা টুডু ও ছেলে রমেন মার্ডি বাড়িতে এসেছিল। অভিযোগ, বেশ কিছুদিন আগে গ্রামে এক ব্যক্তির মৃত্যুর পরেই ডাইনি সন্দেহ করা হয় কমল মার্ডিকে । যার পর গ্রামে সালিশি সভা ডেকে তাঁকে দোষী প্রমাণিত করে মোট ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন গ্রামের মাতব্বররা। বহু কষ্টে ওই টাকা শোধ করে দিলেও ফের সালিশি সভায় মোটা অঙ্কের জরিমানা করা হয় কমল মার্ডিকে। যার টাকা শোধ না দেওয়ায় রবিবার রাতে গ্রামের বাসিন্দা রোটা, শিবেন সহ বেশ কয়েকজন কমল মার্ডির ছেলে রমেন মার্ডিকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় এবং মারধর করে বলে অভিযোগ । বিষয়টি জানতে পেরে ছুটে যান কমল মার্জো। সেখানেই একটি কবরস্থানে তাঁকে জীবন্ত কবর দেওয়ার চেষ্টা করে অভিযুক্ত । তা না পেরে কাদায় চুবিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয় তাঁকে। মৃতের ছেলেকেও এলোপাতাড়িভাবে কোপানো হয় ।
মৃতের বৌমা মসিলা টুডু জানিয়েছেন, বাড়িতে রান্না করছিলেন । সেই সময় তাঁর স্বামী রমেনকে তুলে নিয়ে যায় । তাঁকে বাঁচাতে গিয়েই শ্বশুর মশায়কে ধরে তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুন করেছে ।
মৃতের দাদা বিশ্বনাথ মার্ডি জানিয়েছেন, প্রথমে জরিমানা করা হয়। তা শোধ করলেও ফের জরিমানা করে গ্রামের মাতব্বররা । যা শোধ দিতে না পারায় তাঁকে খুন করা হয়েছে ।