শহরে নামল প্রশান্ত কিশোরের টিম

বালুরঘাট, ১৯ আগস্ট—- লোকসভা নির্বাচনে বালুরঘাটে তৃণমূলের ভরাডুবির কারন খতিয়ে দেখতে ছদ্মবেশে শহরে নামল প্রশান্ত কিশোরের বিশেষ টিম। খবর পৌছাতেই দিদিকে বলোর প্রচারে নামার হিড়িক নেতৃত্বদের। ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে জনসংযোগ বাড়াতে কর্মীদের বাড়িতে খেয়ে দিদিকে বলোর প্রচার সারছেন প্রাক্তন মন্ত্রী শঙ্কর চক্রবর্ত্তী। পিছিয়ে নেই শহর তৃণমূলের অনান্য নেতৃত্বরাও। সাংগঠনিক পরিস্থিতির পাশাপাশি নেতৃত্বদের হাল হকিকত ও তাদের রাতারাতি বড়লোক হবার কারনের উৎসেরও একটি রিপোর্ট এই বিশেষ টিম ইতিমধ্যে সংগ্রহ করেছে বলে সুত্রের খবর। নিজ এলাকাতে মানুষের গ্রহণযোগ্যতা হারিয়েও কিভাবে নেতৃত্বের একাংশ শিখরে রয়েছে, তারও একটি রিপোর্ট তৈরি করেছে প্রশান্ত কিশোরের ওই টিম। বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে তৃণমূলের নিচুস্তরের সংগঠনকে মজবুত করতে প্রশান্ত কিশোরের এই রিপোর্টে ডানাছাটা হতে পারে শহরের বেশকিছু নেতৃত্বের। এমনটাই খবর ছড়িয়েছে জেলার রাজনৈতিক মহলে।পুরভোটের আগেই বালুরঘাট শহরের এই গোপন রিপোর্ট কার্যকর করা হতে পারে বলেও মনে করছেন দলীয় নেতৃত্বদের একাংশ। আর যে কারনেই শহরে প্রশান্ত কিশোরের টিমের গোপন অভিযানের খবর পেতেই কোমর বেধে নেতৃত্বরা নেমেছেন এলাকায়।
বালুরঘাট শহর তৃণমূল সভাপতি সুভাষ চাকী বলেন, প্রতিটি ওয়ার্ডেই শুরু হয়েছে এই কর্মসূচি। ধারাবাহিকভাবে শহরের ২৫ টি ওয়ার্ডেই চলবে এই কর্মসূচি।
ঘটনার কথা স্বীকার করে জেলা তৃণমূল সভাপতি অর্পিতা ঘোষ জানিয়েছেন, লক্ষ্য বিধানসভা ভোট। যে কারনেই ওই টিম এসেছে। তবে এর সাথে পুরভোটের কোনো সম্পর্ক নেই। এলাকায় জনসংযোগ বাড়াতে শহর জুড়ে একশো দিন ব্যাপী দিদিকে বলোর কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। সাধারণ মানুষের কাছ থেকে সমস্যা জানতেই নেতৃত্বরা বিভিন্ন এলাকায় যাচ্ছেন।
১ আগষ্ট থেকে দিদিকে বলোর কর্মসূচি রাজ্যজুড়ে পালন চললেও কিছুটা পিছিয়ে ছিল বালুরঘাট শহর। যা নিয়ে কিছুটা গুঞ্জনও শুরু হয়েছিল শহরে। এরই মধ্যে প্রশান্ত কিশোরের টিম শহরে আসার খবর ছড়িয়ে পড়তেই জোর প্রচারের আসরে নেমেছেন তৃণমুল নেতৃত্ব। রাতদিন এক করে কখনো কর্মীদের বাড়িতে নৈশভোজ, আবার কখনো এলাকায় গিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলতে দেখা যায় নেতৃত্বকে। যে তালিকায় দেখা গেছে প্রাক্তন মন্ত্রী শংকর চক্রবর্তীকেও।