অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ বাচামারি জিকে হাইস্কুল, ক্ষুব্ধ ছাত্রছাত্রীরা

মালদা, ২২ জুলাই— পুরাতন মালদার বাচামারি হাইস্কুলে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি কাণ্ডে নয়া মোড়। অভিযুক্ত শিক্ষককে এখনো পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি। স্কুল কর্তৃপক্ষের তরফে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। পালটা আজ থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্কুল বন্ধ রাখার নোটিশ জারি করা হয়েছে। এনিয়ে পড়ুয়াদের পাশাপাশি ক্ষুব্ধ বহু অভিভাবক। ঘটনার প্রকৃত তদন্ত করে দোষীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার পরিবর্তে স্কুল বন্ধ রেখে পড়াশোনা লাটে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত কতটা ঠিক তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন অনেকে। নোটিশে জানানো হয়েছে, সাম্প্রতিক কিছু ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকা এবং ছাত্রছাত্রীদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই অনির্দিষ্ট কালের জন্য স্কুল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যদিও বিষয়টি নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে চাননি স্কুল কর্তৃপক্ষ।
ঘটনার সূত্রপাত গত ১৫ জুলাই। সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ফাঁকা ক্লাসরুমে মোবাইলে অশ্লীল ছবি দেখিয়ে কুপ্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগ ওঠে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্কুল চত্বরের পাশাপাশি ওই শিক্ষকের বাড়ি বাচামারি গভর্নমেন্ট কলোনি এলাকাতেও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। অভিযুক্ত শিক্ষকের গ্রেপ্তারের দাবিতে শনিবার পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় ছাত্রছাত্রীরা। অভিভাবকদের নিয়ে পুলিশ প্রশাসনের একটি আলোচনাও হয়। পুলিশের পক্ষ থেকে আশ্বাস দেওয়া হয়, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেপ্তার করা হবে। কিন্তু সেই আশ্বাস এখনো বাস্তবায়িত হয়নি। পালটা স্কুল কর্তৃপক্ষের তরফে স্কুলের গেটে অনির্দিষ্ট কালের জন্য ছুটির নোটিশ লাগিয়ে দেওয়া হয়। সোমবার নির্ধারিত সময়ে অনেক ছাত্রছাত্রী স্কুলে হাজির হয়। কিন্তু গেটে স্কুল বন্ধের নোটিশ দেখে ফিরে যেতে হয় তাদের। ছাত্রছাত্রীদের দাবি, আর কয়েকদিন পরেই স্কুলে পরীক্ষা। এখনো সিলেবাস শেষ হয়নি। এর মধ্যে হঠাত করে স্কুল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেওয়ায় বিপাকে পড়তে হয়েছে তাদের। এদিন স্কুলে কোনো শিক্ষক বা শিক্ষিকা স্কুলে হাজির হননি। ফলে তাঁদের কোনো প্রতিক্রিয়া জানা সম্ভব হয়নি।